বাংলাদেশ দলকে দ্রুত দেশে পাঠাতে চায় নিউজিল্যান্ড

নিউজিল্যান্ডে মসজিদে সন্ত্রাসী হামলার পর পরই নিউজিল্যান্ড-বাংলাদেশের মধ্যকার সিরিজের শেষ টেস্ট বাতিল করা হয়েছে। শনিবার আল নুর মসজিদের কাছে হ্যাগলি ওভাল মাঠে শুরু হওয়ার কথা ছিল এই ম্যাচ। এ ঘটনায় বাংলাদেশ দলের খেলোয়াড়দের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। তারা মানসিকভাবে ভেঙ্গে পড়েছেন। হোটেলে ফিরে অনেকেই কেঁদেছেন। তারা এখন অতি দ্রুত দেশে ফিরতে চান। আর নিউজিল্যান্ডও চায় বাংলাদেশ দলকে দ্রুত সময়ের মধ্যে দেশে পাঠাতে।

নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান ডেভিড হোয়াইট জানিয়েছেন, বাংলাদেশ ক্রিকেট দলকে দ্রুত দেশে ফেরত পাঠানোর চেষ্টা চলছে। তিনি বলেন, ‘দুই দলের খেলোয়াড়দেরই কড়া নিরাপত্তার মধ্যে রাখা হয়েছে। তবে যত দ্রুত সম্ভব বাংলাদেশ দলের খেলোয়াড়দের দেশে ফেরত পাঠানোর চেষ্টা চলছে। ক্রাইস্টচার্চের বাইরে থাকা নিউজিল্যান্ডের খেলোয়াড়দেরও তাঁদের পরিবারের কাছে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হচ্ছে।’

নিউজিল্যান্ড ক্রিকেটের এই কর্মকর্তা বলেছেন, “এটা খুবই ভয়াবহ ব্যাপার। আমি বলব ‘আতঙ্কজনক’ এবং ‘জঘন্য’। তবে এ ঘটনায় নিউজিল্যান্ডের ক্রীড়াঙ্গনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা পাল্টে যাবে।”

আজ শুক্রবার স্থানীয় সময় দুপুর দেড়টার দিকে সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ‘স্থানীয় সময় দুপুর ১টা ৩০ মিনিটে নামাজ শুরু হওয়ার কিছুক্ষণ পর একজন বন্দুকধারী সিজদায় থাকা মুসল্লিদের লক্ষ্য করে গুলি করে। এরপর জানালার কাচ ভেঙে হামলাকারী পালিয়ে যায়। এ পর্যন্ত ২ বাংলাদেশিসহ ৪৯ জন নিহতের খবর নিশ্চিত করেছে দেশটির পুলিশ।

নাবা/ডেস্ক/নয়ন