জেনে নিন যেভাবে শিশুর বৃদ্ধি ও মানসিক বিকাশ হবে

নাগরিক বার্তা ডেস্ক: শিশুদের ছেড়ে দিন। মুক্ত করে দিন তাদের। তারা যেন নিজেদের মতো খেলাধুলা ও দৌড়াদৌড়ি করতে পারে। পাশাপশি তাদের দিতে হবে পুষ্টিকর খাদ্য। আর এর মাধ্যমেই শিশুর বৃদ্ধি ও সম্পূর্ণ মানসিক বিকাশ সাধন হবে।

সম্প্রতি জার্নাল অব ফাংশনাল মর্ফোলজি অ্যান্ড কিনেশিয়োলজিতে প্রকাশিত এক সমীক্ষায় এমনটিই জানিয়েছেন গবেষকরা। বর্তমানে দেখা যায়, মা-বাবা তাদের সন্তানের জন্য বাড়ির মধ্যেই খেলাধুলা ও ব্যায়ামাগার করে দেন। কিন্তু এ ব্যবস্থা একটি শিশুর সম্পূর্ণ মানসিক বিকাশ ও বৃদ্ধি সাধনে সক্ষম নয়।

শিশুদের অবশ্যই তার সমবয়সী শিশুর সঙ্গে মিশতে দিতে হবে। তাদের একসঙ্গে খেলাধুলা করতে দিতে হবে। এর মাধ্যমেই তাদের স্বাস্থ্য ও সুস্থতা বজায় থাকে। গবেষকরা প্রায় ১০০ বাড়ি থেকে ১০-১৭ বছর বয়সী স্কুলশিক্ষার্থীর তথ্য বিশ্লেষণ করেছেন।

এ বিশ্লেষণের পর গবেষকরা জানিয়েছেন, বাড়ির মধ্যে নিজে নিজে খেলাধুলা করে শিশুরা আনন্দ খুঁজে পায় না। শিশুদের ছেড়ে দেয়া উচিত। নিজেদের মতো করে খেলাধুলার সুযোগ দেয়া উচিত। তবে শুধু খেলাধুলাই শুধু নয়, বাচ্চাদের খাবারের প্রতিও খেয়াল রাখতে হবে।

১০-১৭ বছর সময়ের মধ্যে সর্বাঙ্গীন বৃদ্ধি বিকাশ হয়। তাই এ সময় প্রচুর পরিমাণে মৌসুমি ও টাটকা ফল খাদ্য তালিকায় রাখতে হবে। তবে প্রক্রিয়াজাত খাবার ও জাংক ফুড যত কম খাওয়ানো যায় ততই ভালো। কারণ এসব খাবার থেকে ওজন বেড়ে যাওয়ার সমস্যা হতে পারে।

তা.আ/