আফ্রিকার ৩ দেশে ঘূর্ণিঝড় : নিহত ২১৫

নাগরিক বার্তাঃ আফ্রিকার উত্তরাঞ্চলীয় মোজাম্বিক, জিম্বাবুয়ে ও মালাউইতে এই তিনটি দেশে ঘূর্ণিঝড় আইডাইয়ের আঘাতে ২১৫।এরও বেশি মানুষ প্রাণ হারিয়েছে। তবে মোজাম্বিকের প্রেসিডেন্ট ফিলিপ নাইসি জানিয়েছেন মৃতের সংখ্যা ১০০০ ছাড়িয়ে যেতে পারে।

এখনও অনেকে নিখোঁজ রয়েছেন। আইদাইয়ের তান্ডবে রাস্তায় উপড়ে পড়েছে গাছ, ছিঁড়ে গেছে বিদ্যুতের তার। যোগাযোগহীন হয়ে পড়েছে লাখ লাখ মানুষ।
৩১ জন নিহতের খবর নিশ্চিত করেছে জিম্বাবুয়ে সরকার। এছাড়া মোজাম্বিকে নিহতের সংখ্যা ৮৭ জনে পৌঁছেছে। মালয়ে এই সংখ্যা ৫৬ জন বলে নিশ্চিত করেছে দেশটির সরকার। এছাড়া দেশ তিনটিতে বহু লোক এখনো নিখোঁজ রয়েছেন। মৃতের সংখ্যা বাড়তে পারে বলে জানিয়েছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ।

আফ্রিকার তিনটি দেশে এই ঘূর্নিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছেন দেড় কোটিরও বেশি মানুষ। সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে মোজাম্বিকে। সেখানকার অধিকাংশ বাড়ি নিশ্চিহ্ন হয়ে গেছে। বিদ্যুতহীন হয়ে পড়েছে পুরো এলাকা। বন্ধ রয়েছে দেশটির বিমানবন্দর।
মোজাম্বিকের বেইরা শহরে বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হয় ঝড়ের দাপট৷ এরপর সেটি গতিপথ পাল্টে জিম্বাবুয়ের ও মালাইয়ে প্রবেশ করে৷ অনেক বাড়ি, স্কুল, হাসপাতাল, পুলিশ স্টেশন সব ধ্বংস হয়ে ৷ ভারী বৃষ্টিতে বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে৷ অনেক নিচু এলাকা পানিতে তলিয়ে গেছে। লাখ লাখ মানুষ আশ্রয়হীন হয়ে পড়েছে।

জাতিসংঘ জানিয়েছে , আফ্রিকার দক্ষিণাঞ্চলীয় দেশগুলোতে কমপক্ষে ১৫ লক্ষাধিক লোক ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। তিন দেশের সরকারি উদ্ধারকারীদের সহযোগিতা করছে জাতিসংঘের সংস্থা ও রেডক্রস। তারা হেলিকপ্টারে করে খাদ্য এবং ওষুধ সরবরাহ করছে।

ক্ষয়ক্ষতির পুরোপুরি হিসেব মিললে হতাহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে জানিয়েছে রেডক্রস। ইতোমধ্যে দুর্গতদের সহায়তায় দুযোর্গ ব্যবস্থাপনা তহবিল থেকে ৩ লাখ ৪০ হাজার ডলার সহায়তা প্রদান করা হয়েছে বলেছে জানিয়েছে সংস্থাটি।

নাবা/তানিয়া রাত্রি/