অসম্মানজনক অঙ্গভঙ্গি নিয়ে বিপাকে রোনালদো

দুর্দান্ত হ্যাটট্রিকে জুভেন্টাসকে কোয়ার্টার ফাইনালে তুলেছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। ম্যাচ শেষ হবার পর অ্যাটলেটিকোর সমর্থকদের লক্ষ্য করে অসম্মানসূচক অঙ্গভঙ্গি করেন তিনি। এর জন্য বেশ ঝামেলা পোহাতে হতে পারে রোনালদোকে।

অ্যাটলেটিকোর সঙ্গে রোনালদোর বৈরিতার ইতিহাস আজকের নয়। রিয়াল মাদ্রিদে যখন ছিলেন, সিমিওনের দল জ্বালিয়ে ছেড়েছিল তাঁকে। জুভেন্টাসে আসার পরেও অ্যাটলেটিকো রোনালদোর পিছু ছাড়েনি। চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোলোয় রোনালদোর নতুন দল জুভেন্টাস আর অ্যাটলেটিকো মুখোমুখি হয়েছিল । রোনালদো সঙ্গে সিমিওনেদের ঝামেলা তো আছেই, তার ওপর খেলোয়াড়ি জীবনে লাৎসিও ও ইন্টার মিলানের খেলোয়াড় হওয়ার কারণে জুভেন্টাসকে সহ্য করতে পারেন না অ্যাটলেটিকোর এই কোচ।

ফলে প্রথম লেগে তাঁর দল ২-০ গোলে জিতলে দর্শকদের দিকে তাকিয়ে সিমিওনে নিজের অণ্ডকোষ হাত দিয়ে চেপে ধরে অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি করেছিলেন তখন ব্যাপারটা সহ্য হয়নি রোনালদোর।মনে মনে প্রতিজ্ঞা করেছিল যেভাবেই হোক, অ্যাটলেটিকোকে টপকে পরের রাউন্ডে যেতে হবে এবং ঠিক তাই ঘটেছে। নিজেদের মাঠে ফিরতি লেগে অ্যাটলেটিকোকে ৩-০ গোলে হারায় জুভেন্টাস, হ্যাটট্রিক করেন রোনালদো। হ্যাটট্রিক করে ম্যাচ শেষে সিমিওনের প্রতি ক্ষোভ আটকে রাখতে পারেনি। সিমিওনে যেভাবে দর্শকদের অসম্মান করে অঙ্গভঙ্গি করেছিলেন, একই কাজ রোনালদোও করেছেন। ফলে এখন সিমিওনের মতো বিপাকে পড়তে যাচ্ছেন রোনালদোও।

অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি করার দায়ে সিমিওনেকে বিশ হাজার ইউরো জরিমানা করেছে উয়েফা। তবে সিমিওনে এক দিক দিয়ে বেঁচে গেছেন, কেননা নিজের দলের সমর্থকদের দিকে তাকিয়ে ওই কাজটা করেছেন তিনি। কিন্তু রোনালদো বিষয় ব্যাতিক্রম একদম অ্যাটলেটিকোর সমর্থকদের সামনে গিয়ে অশ্লীল ভঙ্গিটা করেছেন। যার ফলে অর্থ জরিমানা সহ এক থেকে তিন ম্যাচের জন্য চ্যাম্পিয়নস লিগ থেকে নিষিদ্ধও হতে পারেন রোনালদো। অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ উয়েফার কাছে এ ব্যাপারে আনুষ্ঠানিকভাবে অভিযোগ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ।

রোনালদো নিষিদ্ধ হলে জুভেন্টাসের জন্য অনেক বড় একটা ক্ষতিই অপেক্ষা করছে!

নাবা/ডেস্ক/ওমর